You are here:

Welcome To Government B. L. College Khulna

Welcome To Ispahani Girls' School and College sdsafsfsaf
You are here:

History

জন্মকথা
ইস্পাহানী বালিকা বিদ্যালয় ও মহাবিদ্যালয় ঢাকার প্রাণকেন্দ্র মগবাজার এলাকায় অবসি´ত একটি স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। স্বাধীনতা পূর্বকাল থেকে মগবাজার এলাকায় কোন বালিকা বিদ্যালয় না থাকায় এলাকাবাসী এখানে একটি বালিকা বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করার প্রয়োজনীয়তা গভীরভাবে অনুভব করেন। পরবর্তীতে প্রখ্যাত শিল্পপতি, শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবী মরহুম মীর্জা আহমেদ ইস্পাহানীর পৃষ্ঠপোষকতা, বদান্যতা ও মগবাজার এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মহৎ প্রচেষ্টায় ১৯৭৩ সালে স´াপিত হয় ইস্পাহানী বালিকা বিদ্যালয়।


১৯৭৩ সালের ০১ জানুয়ারী মাত্র পাঁচটি ছোট ছোট টিনের ঘর ও ৭০জন ছাত্রী নিয়ে পঞ্চম থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত ক্লাশ চালু করে শুরু হয় প্রতিষ্ঠানটির শুভ যাত্রা। পরবর্তী বছর প্রথম শ্রেণী থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত খোলা হয়। ১৯৭৫ সালে প্রথমবারের মত দশ জন ছাত্রী এই প্রতিষ্ঠান থেকে এস.এস.সি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে সাফল্যের সাথে উত্তীর্ণ হয়। অব্যহত সাফল্যে ও ধারা প্রতিষ্ঠানটিকে আরও এগিয়ে নিতে অনুপ্রেরণা যোগায়। অবশেষে ১৯৯০ সালে সংশ্লিষ্ট সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় স্কুলটি মহাবিদ্যালয়ে উন্নীত হয়।

১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠানটি ঢাকার মেট্রোপলিটন এলাকার শ্র্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে রাষ্ট্রীয় পুরস্কার অর্জন করে। ১৯৯৮ সালে প্রতিষ্ঠানের নিবেদিত প্রাণ প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ মিসেস মবিনা খাতুন শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসাবে জাতীয় পুরস্কারে ভূষিত হন।

উন্নয়নের ধারা অব্যহত রেখে সামনের দিকে এগিয়ে চলা এই প্রতিষ্ঠানটির বর্তমান ছাত্রী সংখ্যা ১৭১৫ জন। শিক্ষক-প্রভাষক,কর্মচারী মিলিয়ে কার্যরত আছেন ৬১ জন। পড়াশুনার পাশাপাশি ছাত্রীরা সহশিক্ষা কার্যক্রমও যথেষ্ট পারদর্শী। প্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের জন্য হলদে পাখি, গার্ল গাইডস ও রেঞ্জার ইউনিট চালু আছে। এছাড়া বির্তক, নৃত্য ও সংগীত, বাটা হ্যান্ডবল, ডেল্টা লাইফ ইন্সুরেন্স কর্তৃক আয়োজিত হান্ডবল প্রতিযোগীতায় ছাত্রীরা শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে নিয়মিত অংশগ্রহণ করে থাকে। এস.এস.সি ও এইচ.এস.সি পরীক্ষায় ছাত্রীদের সাফল্যের হার অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক।